রবিবার , মে ২৬ ২০১৯

অ্যাম্বুলেন্সে বসে মাস্টার্স পরীক্ষা দেওয়া মেয়েটি পেল ১ম বিভাগ

মো: বাবুল হোসাইন, পঞ্চগড় প্রতিনিধিঃ অ্যাম্বুলেন্সে বসে মাস্টার্স পরীক্ষা দিচ্ছে আজমেরী আক্তার, কথায় আছে ‘ইচ্ছে থাকলে উপায় হয়’ আর তেমনি আজমেরীর প্রবল ইচ্ছে ছিল পড়াশোনা করার।

তিনি প্রসব বেদনা নিয়ে অ্যাম্বুলেন্সে বসে মাস্টার্স ২০১৬ সালের পরীক্ষায় আজমেরী আক্তার জিপিএ ৩.৩৪ পেয়ে উত্তীর্ন হয়। তিনি পঞ্চগড় মকবুলার রহমান সরকারি কলেজে হিসাববিজ্ঞান বিভাগে মাস্টার্স পরীক্ষার্থী ছিলেন। পরীক্ষা চলাকালীন তার প্রসব বেদনা উঠে। পরে পরিবারের লোকজন তাকে রাতে পঞ্চগড় মা ও শিশু কল্যাণ কেন্দ্রে ভর্তি করেন। পরদিন সকালে তার মাস্টার্স চূড়ান্ত পর্বের পরীক্ষা শেষ করেন। জানা গেছে, স্বামীর বাড়ি জেলার তেঁতুলিয়া উপজেলার আজিজনগর গ্রামে।

স্বামী নূরনবী ইসলাম পেশায় সেনাবাহিনীর সদস্য। তিন বছর আগে তাদের পারিবারিকভাবে বিয়ে হয়। লেখাপড়ার প্রতি প্রবল আগ্রহের কারণে অন্ত:স্বত্ত্বা অবস্থায়ও তিনি পড়াশুনা বাদ দেননি। তিনি দৈনিক অধিকারকে বলেন, টানা তিন ঘন্টা পরীক্ষা দেয়ার পর প্রসব বেদনা বাড়লে আর লিখতে পারেনি আমি। পরে আমাকে পুনরায় পঞ্চগড় মা ও শিশু কল্যাণ কেন্দ্রে ভর্তি করা হয়।

পরবর্তীতে রাতে আমার ছেলে সন্তান প্রসব হয়। তিনি আরো বলেন,আমার কষ্ট করে পরীক্ষা দেওয়া স্বার্থক হয়েছে। আমি খুব ভালো রেজাল্ট করেছি, তাই ভালো লাগছে। পরীক্ষায় পর্যবেক্ষণের দায়িত্বে ছিলেন, হাসনুর রশিদ বাবু স্যার।

Check Also

ঠাকুরগাঁওয়ে ভূমিহীন সমন্বয় কমিটির সংবাদ সম্মেলন

জয় মহন্ত অলক: “ ভূমি অধিকার,মানবাধিকার” এই প্রতিপাদ্য বিষয়কে সামনে রেখে ঠাকুরগাঁওয়ে খাস ভূমি ও …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *